বিদায়ী ২০১৯ সালে রেকর্ড পরিমাণ বাংলাদেশিকে হত্যা করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী-বিএসএফ। আবার চলতি বছরের শুরুতেই এই হত্যার সংখ্যাও বেড়েছে। সীমান্তে এমন একপক্ষীয় হত্যায় উদ্বিগ বাংলাদেশ।

রবিবার (১২ জানুয়ারি) দুপুরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে প্রধানমন্ত্রীর আবুধাবি সফর নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এ কথা বলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে হত্যাকাণ্ড শূন্যতে নামিয়ে আনতে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর মধ্যে বৈঠক হয়েছে। তারা এ হত্যাকাণ্ড বন্ধে পদক্ষেপও নিয়েছে। তবুও হত্যাকাণ্ডের মতো ঘটনা ঘটেছে।’

একজন নাগরিকও যেন হত্যার শিকার না হয়, সেটি ভারতকে জানানো হয়েছে বলেও জানান ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পর পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীও ভারত সফর বাতিল করেছে। এমন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রতিমন্ত্রী সেখানে যেতে পারবেন না, এটা আগেই জানিয়ে দেয়া হয়েছে। এটা নিয়ে ভারতের গণমাধ্যম একটু বেশি করছে। আমরা তো কোনো কিছুই বলছি না। ভরতের সাথে আমাদের সম্পর্ক ভালোই।’

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘কাশ্মিরি শিক্ষার্থীদের বাংলাদেশ ভিসা দিচ্ছে না বলে ভারতীয় গণমাধ্যম যে খবর দিয়েছে, সেটা মিথ্যা। এই ধরনের কোনো ঘটনা ঘটেনি। আমরা সবাইকে ভিসা দিচ্ছি।’

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন ও মন্ত্রণালয়ের মেরিটাইম অ্যাফেয়ার্স ইউনিটেরে প্রধান রিয়ার অ্যাডমিরাল (অব.) খুরশেদ আলম।